Banglar Chokh | বাংলার চোখ

রাঙামাটিতে চুরি হওয়ার একঘন্টার মধ্যেই ২ মোটরসাইকেল উদ্ধার; আটক-১(ভিডিও)

আলমগীর মানিক,রাঙামাটি থেকে

প্রকাশিত: ১৮:৫৩, ২৬ নভেম্বর ২০২২

আপডেট: ১৯:৪১, ২৬ নভেম্বর ২০২২

চট্টগ্রাম থেকে ছদ্মবেশে রাঙামাটিতে এসে পূর্বপরিকল্পনানুসারে মোটর সাইকেল চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় দুইটি মোটরসাইকেলসহ সিন্ডিকেট চোর চক্রের এক সদস্যকে আটক করেছে রাঙামাটির কোতয়ালী থানা পুলিশ। শনিবার ভোররাতে রাঙামাটির ঘাগড়ায় বিশেষ চেকপোষ্ট বসিয়ে মিজানুর রহমান মিজান নামের একচোরকে সুজুকি জিক্সার মোটর সাইকেলসহ আটক করে পুলিশ। মিজান রাঙামাটি শহরের হাসপাতাল এলাকার বাসিন্দা হলেও সে প্রায় সময়ই চট্টগ্রামে অবস্থান করে। তার স্বীকারোক্তি মতে রাঙামাটি শহরের প্রবেশমুখ মানিকছড়ি এলাকায় অপর আরেকটি অভিযান পরিচালনা করে আরো একটি পালসার মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সিন্ডিকেট চোররা অন্ধকারে পাহাড়ের ভেতরে পালিয়ে যায়।
রাঙামাটি সদর সার্কেল এর দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ জাহেদুল ইসলাম জানিয়েছেন, রাত সাড়ে তিনটার সময় আমাদের কাছে রাঙাপানি থেকে এবং ভেদভেদী থেকে মোটর সাইকেল চুরি হয়েছে মর্মে খবর আসে। সাথে সাথেই আমরা রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়কের বিভিন্ন স্থানে বিশেষ চেকপোষ্ট বসিয়ে তল্লাসী শুরু করি। অবশেষে ঘাগড়ায় মিজানকে হাতেনাতে গাড়িসহ আটক করি এবং মানিকছড়ি থেকেও একটি গাড়ি উদ্ধার করি। মোটর দুইটি মোটর সাইকেলই একই চোর চক্রের সদস্যরা রাঙামাটি শহরের রাঙাপানি ও ভেদভেদীর পৃথক দুইটি বসতবাড়ির গ্রীল কেটে মোটর সাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিলো।
এক প্রশ্নের জবাবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, মূলতঃ চট্টগ্রাম থেকে ছদ্মবেশে রাঙামাটিতে এসে দিনের বেলায় মোটর সাইকেল রাখার স্থানগুলো রেকি করে চোর চক্রের সদস্যরা। তারপর রাতে সুযোগবুঝে তালা কেটে গাড়ি নিয়ে চট্টগ্রাম নিয়ে যায়। এরপর গাড়িগুলো ফেনী, নোয়াখালীসহ বিভিন্ন জেলায় বিক্রি করে দেয় বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানাগেছে। ইতিমধ্যেই রাঙামাটি থেকে মোটর সাইকেল চোর চক্রের আরো কয়েকজন সদস্যের নাম তারা জানতে পেরেছেন বলেও জানিয়ে পুলিশ।
অপরদিকে কোতয়ালী থানার দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানিয়েছে, সাম্প্রতিক সময়ে রাঙামাটি শহরে মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় পুরো শহরজুড়েই পুলিশের নজরদারি বৃদ্ধির পাশাপাশি অস্থায়ী চেকপোষ্ট বসিয়ে তল্লাসী চালানো হচ্ছে প্রতিনিয়ত। বিভিন্ন মাধ্যমে পুলিশ জানতে পারে, রাঙামাটির স্থানীয় একটি উপজাতীয় গ্রুপের সাথে আঁতাত করে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে দামি দামি মোটর সাইকেলের তথ্য ও চুরি করে নিরাপদে পালিয়ে যাওয়ার রুট সম্পর্কে অবহিত হয় সিন্ডিকেট চক্র। ইতিমধ্যেই কোতয়ালী থানা পুলিশ এই ব্যাপারে জানতে পেরেছে এই চক্রটিকে আইনের আওতায় আনতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করছে বলেও সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়