১৯ জুন ২০২১, শনিবার ০৩:৫৪:৫৯ এএম
সর্বশেষ:

০২ মার্চ ২০২১ ০২:৪৮:৫৮ এএম মঙ্গলবার     Print this E-mail this

পাবনায় পক্ষকালব্যাপী একুশে বইমেলা শুরু

পাবনা প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 পাবনায় পক্ষকালব্যাপী একুশে বইমেলা শুরু

‘বইয়ের ঘ্রাণে, সুবোধ জাগুক প্রাণে’ এই শ্লোগানে পাবনায় শুরু হলো পক্ষকালব্যাপী একুশে বইমেলা। সোমবার (০১ মার্চ) বিকেলে পাবনা শহরের স্বাধীনতা চত্বরে এই বইমেলার উদ্বোধন করা হয়।

একুশে পদকপ্রাপ্ত পাবনার দুই কৃতি সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক কলামিস্ট অ্যাডভোকেট রণেশ মৈত্র এবং সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট গোলাম হাসনায়েন জাতীয় সঙ্গীত সুরে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে বইমেলার উদ্বোধন করেন।

এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পাবনা-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু। বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘বই আমাদের অকৃত্রিম বন্ধু। আর বইমেলা বাঙালি সংস্কৃতির অংশ। রাজধানী ঢাকার পরেই বৃহত্তর এই জেলায় সবচেয়ে বড় বইমেলা উদযাপন হয়ে আসছে। তিনি আফসোস করে বলেন বর্তমান ফেসবুক ইন্টারনেটের যুগে যুব সমাজ বই পড়া থেকে অনেক দুরে চলে যাচ্ছে, ছেলেমেয়রা বই পড়তেই চায়না। তারা শুধু নেট নিয়ে বসে থাকে। বইপড়া শূন্যের কোঠায় নেমে আসছে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাহিত্যিক তৈরির জন্য বাংলা একাডেমীকে প্রতিষ্ঠা করেছেন, হাজার হাজার লাইব্রেরি গড়ে গেছেন, তিনি সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার ভাবনা, মাদক, সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ গঠণে কাজ করে গেছেন, সেই থেকেই তার সুযোগ্য কন্না এই দেশটা এগিয়ে নিতে কাজ করছেন। ১৯৪৮ সালে বঙ্গবন্ধুর গ্রেফতারের মধ্য দিয়ে ভাষা আন্দোলনের সূচনা হয়। স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে রুপান্তর হয়েছে।

বই মেলা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক হাবিবুর রহমান স্বপন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, পাবনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল রহিম লাল, নাগরিক মঞ্চের সভাপতি ইদ্রিস আলী বিশ্বাস, নব-নির্বাচিত পাবনা পৌর মেয়র শরীফ উদ্দীন প্রধান, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ারুল ইসলাম, আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট বেলায়েত আলী বিল্লু, সুলতান আহমেদ বুরো, নাসির চৌধুরী, লেখক আফতাব আলী প্রমুখ। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন স্থানীয় শিল্পীরা।

উদ্বোধনী আলোচনা সভা শেষে অতিথিরা কয়েকটি নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন। আয়োজকরা জানান, বইমেলার সাথে একযোগে চলবে দুর্লভ বইয়ের প্রদর্শনী। পাঠক ও দর্শনার্থীরা বই কেনার পাশাপাশি পরিচিত হতে পারবেন ঐতিহাসিক পুস্তকের সঙ্গে।

প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে মেলামঞ্চে হবে বই নিয়ে আলোচনা। আলোচনায় জেলার বিভিন্ন এলাকার শিক্ষক, আইনজীবী, সাংবাদিক, চিকিৎসক, সাংস্কৃতিক কর্মী ও বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরাসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার পাঠকেরা অংশ নেবেন। এ ছাড়া থাকবে জেলার লেখকদের নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও নাটক। একইসাথে এই বছরের বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার প্রাপ্ত সাহিত্যিক গোলাম হাসনাইনকে সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়।

এবারের বই মেলায় ৪৪টি স্টল বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। মেলা প্রতিদিন বিকাল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলবে। ছুটির দিন মেলা শুরু হবে সকাল ১০টা থেকে। সবাইকে মাস্ক পড়ে স্বাস্থবিধি মেনে মেলায় আসতে হবে।

একুশে বই মেলা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে ১৬ দিনব্যাপী বইমেলার পর্দা নামবে আগামী ১৬ মার্চ। করোনা পরিস্থিতির কারণে এ বছর ফেব্রুয়ারি মাসের পরিবর্তে মার্চ মাসে শুরু হলো বইমেলা।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2021. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close