Banglar Chokh | বাংলার চোখ

ফুলবাড়ীতে  বাড়ী বাড়ী গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হয়নি,ভোটার প্রত্যাশিদের লিখিত অভিযোগ 

 অমর চাঁদ গুপ্ত অপু, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৬:৪৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

ফুলবাড়ীতে  বাড়ী বাড়ী গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হয়নি,ভোটার প্রত্যাশিদের লিখিত অভিযোগ 

নিজস্ব ছবি

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ভোটারদের তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমে ভোটারদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করার কথা থাকলেও ফরম সংকটের অজুহাতে সেটি না করার লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ওয়াজেদ আলী। 

গতকাল সোমবার দুপুর ১২টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে গণস্বাক্ষরিত পৃথক দুটি লিখিত অভিযোগ প্রদান করেছেন নতুন ভোটার প্রত্যাশী পৌরএলাকার কানাহার গ্রামের কলেজ শিক্ষার্থী আমিনুল ইসলাম। এসময় অন্যান্য ভোটার তথ্য সংগ্রহ থেকে বাদ পড়া বিক্ষুদ্ধ নতুন ভোটার প্রত্যাশীরা উপস্থিত ছিলেন। 

অভিযোগে জানা যায়, পৌরএলাকায় তিনদিন ব্যাপী তথ্য সংগ্রহ শুরু হলেও দায়িত্বরত সুপারভাইজার ও তথ্য সংগ্রহকারীদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে তথ্য সংগ্রহের নির্দেশ থাকলেও কোনো তথ্য সংগ্রহকারীই তাদের বাড়ীতে যায়নি। এমন অবস্থায় অভিযোগকারীরা নিজ নিজ এলাকার তথ্য সংগ্রহকারীদের ফোন করলে তথ্য সংগ্রহকারীরা জানিয়ে দেন, তথ্য সংগ্রহের সময় পেরিয়ে গেছে, আর ফরমও শেষ হয়ে গেছে, যারা বাদ পড়েছেন তারা নির্বাচন কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করেন। 

অভিযোগকারি আমিনুল ইসলাম, তন্ময় সরকার, সঞ্জু সরকার, আশিক, মোছা. কুলসুম ও ফাহিম বলেন, তথ্য সংগ্রহকারী ও নির্বাচন কর্মকর্তার দায়িত্বহীনতার কারণে আমরা আমাদের তথ্য সংগ্রহ করা হয়নি। তাদের কারণে আজ আমারে হয়রানীর শিকার হতে হচ্ছে। অনেকে বাইরের কম্পিউটারে টাকা দিয়ে ভোটার তালিকায় তথ্য প্রদান করেছেন। 

পৌরএলাকার উত্তর সুজাপুর গ্রামের তথ্য সংগ্রহকারী সহকারী শিক্ষক কামরুজ্জামান বলেন, আমাদেরকে যে কয়টি ফরম নির্বাচন অফিস থেকে দেয়া হয়েছে তা নিয়ে বাড়ী বাড়ী গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করেছি। ফরম শেষ হওয়ার পর নির্বাচন কর্মকর্তা বলেছেন ফরম নেই। 

পৌরএলাকার ১ থেকে ৫ নং ওয়ার্ডের সুপারভাইজার এসকে মোহাম্মদ আলী বলেন, তার অধিনে যারা তথ্য সংগ্রহ করেছেন তারা ঠিক মতোই দায়িত্ব পালন করেছেন। কিন্তু ফরম না থাকায় কিছু এলাকায় সমস্যা হয়েছে। 

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ওয়াজেদ আলী বলেন, ‘বরাদ্দকৃত ফরমের চেয়ে নতুন ভোটারের সংখ্যা বেশি হওয়ায় ফরম শেষ হয়েছে। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফরম পাঠালেই বাদ পড়াদের ফরম পূরণ করা হবে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিয়াজ উদ্দিন বলেন, উপস্থিত নতুন ভোটারদের হাতে ফরম দিয়ে তাৎক্ষণিক পূরণ করে নেওয়ার নিদের্শনা থাকলেও তথ্য সংগ্রহকারীরা ফরম বাড়ীতে দিয়ে চলে এসেছেন। তা আর সংগ্রহ করা হয়নি। ফরম না থাকার বিষয়ে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার সাথে কথা হয়েছে। তিনি ফরম পাঠাবেন। ছবি তোলার দিনে বাদ পড়া সবাইকে ফরম দিয়ে ভোটার করে নেওয়া হবে। 
 

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়