Banglar Chokh | বাংলার চোখ

শেরপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ

শেরপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০০:৩৫, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

শেরপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ

নিজস্ব ছবি

শেরপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্যদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এ প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়। এসময় জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক সাহেলা আক্তার, সহকারী রির্টানিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শানিয়াজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

সকালে চেয়ায়ম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট চন্দর কুমার পালকে আনারস প্রতীক, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী সাবেক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বর্তমান প্রশাসক হুমায়ুন কবির রুমানকে মোটরসাইকেল প্রতীক বরাদ্দসহ অন্যান্য প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।

প্রতীক বরাদ্দের সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থী অ্যাডভোকেট চন্দন কুমার পালের সঙ্গে দলের সহ সভাপতি ফকরুল মজিদ খোকন, নাসরিন বেগম, শামিম আহমেদ সহ অন্যান্য নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এদিকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হুমায়ুন কবির রুমানের পক্ষে প্রতীক বরাদ্দ নেন শেরপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র কামাল হোসেন।

শেরপুর জেলা পরিষদের এবারের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ৫ ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য পদে ১৭ জন এবং ২ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৩ জন প্রতিন্দন্দ্বীতা করছেন। এছাড়া ১ নং সংরক্ষিত ওয়ার্র্ডের মহিলা সদস্য ফারহানা পারভিন মুন্নি বিনা প্রতিন্দন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
শেরপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ
    
শেরপুর প্রতিনিধি :  শেরপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্যদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এ প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়। এসময় জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক সাহেলা আক্তার, সহকারী রির্টানিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শানিয়াজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

সকালে চেয়ায়ম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট চন্দর কুমার পালকে আনারস প্রতীক, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী সাবেক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বর্তমান প্রশাসক হুমায়ুন কবির রুমানকে মোটরসাইকেল প্রতীক বরাদ্দসহ অন্যান্য প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।

প্রতীক বরাদ্দের সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থী অ্যাডভোকেট চন্দন কুমার পালের সঙ্গে দলের সহ সভাপতি ফকরুল মজিদ খোকন, নাসরিন বেগম, শামিম আহমেদ সহ অন্যান্য নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এদিকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হুমায়ুন কবির রুমানের পক্ষে প্রতীক বরাদ্দ নেন শেরপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র কামাল হোসেন।

শেরপুর জেলা পরিষদের এবারের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ৫ ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য পদে ১৭ জন এবং ২ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৩ জন প্রতিন্দন্দ্বীতা করছেন। এছাড়া ১ নং সংরক্ষিত ওয়ার্র্ডের মহিলা সদস্য ফারহানা পারভিন মুন্নি বিনা প্রতিন্দন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
 

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়