Banglar Chokh | বাংলার চোখ

গার্ডারে চাপায় নিহত রুবেলের লাশ নিতে এসেছেন ৭ স্ত্রী!

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৮:১১, ১৬ আগস্ট ২০২২

গার্ডারে চাপায় নিহত রুবেলের লাশ নিতে এসেছেন ৭ স্ত্রী!

ফাইল ফটো

রাজধানীর উত্তরায় বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের কংক্রিটের গার্ডার আছড়ে পড়ে নিহত রুবেল হাসানের (৬০) মরদেহ নিতে মর্গে এসেছেন ৭ নারী। তারা প্রত্যেকেই দাবি করছেন, রুবেল তার স্বামী।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গের সামনে এ চিত্র দেখা যায়। স্ত্রীরা সবাই রুবেলের মরদেহ দাবি করছেন। তাদের সঙ্গে সন্তানরাও এসেছে। তবে স্ত্রীদের একজন আরেকজনের বিয়ের ব্যাপারে কিছু জানেন না, এমনকি এমনটি হতেই পারে না বলেও দাবি করছেন।

রুবেলের স্ত্রী দাবি করে হাসপাতালে আসা নারীরা হলেন, নারগিস বেগম, রেহেনা বেগম, শাহিদা বেগম, সালমা আক্তার পুতুল ও তাসলিমা আক্তার লতা। এই পাঁচজন মর্গের সামনে এসে মরদেহ দাবি করছেন। আরেকজনের নাম টিপু। তিনি মারা গেছেন। রুবেলের সন্তান জন্ম দেওয়ার সময় তার মৃত্যু হয়। এছাড়া বাকি একজনের নাম জানা যায়নি।

 এ বিষয়ে পুলিশ কিংবা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এদিকে, একাধিক স্ত্রী মর্গের সামনে উপস্থিত হওয়ায় মরদেহ নিয়ে যাওয়া এবং পরে অর্থ-সম্পত্তি নিয়ে জটিলতা সৃষ্টির আশঙ্কা করছেন স্বজনরা।

সোমবার রাজধানীর উত্তরায় নির্মাণাধীন বিআরটি প্রকল্পের গার্ডার চাপায় ৫ জনের প্রাণ যায়। এদের মধ্যে পরিবারের কর্তা রুবেলও নিহত হন। তিনি গাড়িটি চালাচ্ছিলেন।

গাড়িটিতে মোট সাতজন ছিলেন। পাঁচজন ঘটনাস্থলেই মারা যান। ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান হৃদয় ও রিয়া দম্পতি। নিহতরা হলেন, হৃদয়ের বাবা রুবেল, হৃদয়ের শাশুড়ি ফাহিমা খাতুন (৪০), ফাহিমার বোন ঝরণা আক্তার (২৮) এবং ঝণার দুই সন্তান জান্নাত (৬) ও জাকারিয়া (২)।

 

উৎস:পূপ

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়