Banglar Chokh | বাংলার চোখ

যুক্তরাজ্য প্রবাসী দুই সাংবাদিকের ভাইকে নি:শর্ত মুক্তির আহ্বান জানিয়েছে সিপিজে 

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০১:১৬, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

যুক্তরাজ্য প্রবাসী দুই সাংবাদিকের ভাইকে নি:শর্ত মুক্তির আহ্বান জানিয়েছে সিপিজে 

লোগো

যুক্তরাজ্য প্রবাসী দুই সাংবাদিকের ভাইকে অবিলম্বে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্ট (সিপিজে)। যুক্তরাজ্য প্রবাসী সাংবাদিক শামসুল আলম লিটন ও আবদুর রব ভূট্টোর ভাইকে সম্প্রতি দেশে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রবাসী সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্যদের দেশে হয়রানি ও গ্রেফতারে সিপিজে উদ্বেগ প্রকাশ করে এই আহ্বান জানিয়েছে।

মঙ্গলবার সিপিজের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, বৃটেন প্রবাসী দুই সাংবাদিকের ভাইদের গ্রেপ্তার করেছে বাংলাদেশ পুলিশ। বাংলাদেশ সরকারকে অবশ্যই অবিলম্বে যুক্তরাজ্য প্রবাসী সাংবাদিক শামসুল আলম লিটনের ভাই নুর আলম চৌধুরী পারভেজ এবং আবদুর রব ভূট্টোর ভাই আব্দুল মুক্তাদির মনুকে নি:শর্ত মুক্তি দিতে হবে। এছাড়া যেসব সাংবাদিক বিদেশে বসে সাংবাদিকতা করছেন তাদের পরিবারের সদস্যদের হয়রানি বন্ধের আহবানও জানানো হয়েছে সিপিজের বিবৃতিতে।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, গত ১৩ই সেপ্টেম্বর নোয়াখালী শহর থেকে বাংলাদেশ পুলিশের গোয়েন্দা শাখার সদস্যরা নুর আলমকে গ্রেপ্তার করে। তিনি বৃটেনভিত্তিক সাপ্তাহিক সংবাদপত্র সুরমা’র সম্পাদক শামছুল আলম লিটনের বড় ভাই। পুলিশের অভিযোগ, বৃটেনে বসে লিটন সোশ্যাল মিডিয়াতে সরকারের বিরুদ্ধে প্রোপ্যাগান্ডা ছড়াচ্ছে এবং তার সঙ্গে মিলে পারভেজও দেশের নাগরিকদের মধ্যে ‘বিভ্রান্তি ও উৎকণ্ঠা’ সৃষ্টি করছে।

এর আগে গত ৯ই সেপ্টেম্বর মৌলভীবাজার শহর থেকে গ্রেপ্তার করা হয় আব্দুল মুক্তাদির মনুকে। তিনিও সুরমা নিউজের একজন বিশেষ প্রতিনিধি এবং লন্ডন বাংলা চ্যানেল নামে তার একটি ডিজিটাল নিউজ প্ল্যাটফর্মও রয়েছে। সিপিজে’র এশিয়া প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর বেহ লিহ ই জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্ট থেকে বলেন, বাংলাদেশ সরকার যেভাবে সমালোচনাকারী সাংবাদিকদের পরিবারকে টার্গেট করছে তা প্রতিশোধ গ্রহণের একটি জঘন্য রূপ।

এই হয়রানি বন্ধের জন্য বিবৃতিতে বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী দেশ গুলোর কূটনৈতিক এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। বিবৃতিতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহবান জানিয়ে বলা হয়েছে, অবশ্যই দ্রুততার সঙ্গে এবং নি:শর্তভাবে নুর আলম চৌধুরী পারভেজ এবং আব্দুল মুক্তাদির মনুকে মুক্তি দিতে হবে। একইসঙ্গে বিদেশে বসে সাংবাদিকতা করাদের পরিবারের সদস্যদের আটক, হেনস্থা কিংবা যে কোনো ধরণের প্রতিশোধ গ্রহণ থেকে বিরত থাকতে হবে।

বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন বৃটেন ও যুক্তরাষ্ট্র সফরে গেছেন তার কিছু দিন আগেই এই গ্রেপ্তারের ঘটনাগুলো ঘটেছে। এ নিয়ে বাংলাদেশ পুলিশ, আওয়ামীলীগ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ই-মেইল পাঠিয়েছে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক এই সংগঠনটি। তবে এসব ই-মেইলের কোনো রিপ্লাই আসেনি বলে জানানো হয়েছে বিবৃতিতে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করা সংগঠনটি জানিয়েছে, এর আগেও বাংলাদেশ সরকার যুক্তরাষ্ট্রে থাকা সাংবাদিক কনক সরওয়ারের বোন নুসরাত শাহরিন রাকাকে গ্রেপ্তার করেছিল।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়