banglarchokh Logo

দেশবাসীর উদ্দেশ্যে হেফাজত আমিরের ভিডিও বার্তা

হেফাজত কোনো সংঘাতেও যেতে চায় না

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
দেশবাসীর উদ্দেশ্যে হেফাজত আমিরের ভিডিও বার্তা হেফাজত কোনো সংঘাতেও যেতে চায় না

ভিডিও বার্তায় হেফাজত আমির আল্লামা বাবুনগরী বলেন, হেফাজত শান্তি-শৃঙ্খলা চায়। কোন অশান্তি বা বিশৃঙ্খলায় যেতে চায়না। হেফাজত কোনো সংঘাতেও যেতে চায় না। কাউকে ক্ষমতায় বসানো বা কাউকে ক্ষমতা থেকে নামানো হেফাজতের উদ্দেশ্য নয়। কোন পার্টি বা দলের এজেন্ডা বাস্তবায়ন হেফাজত ইসলামের উদ্দেশ্য নয়। হেফাজতের উদ্দেশ্য হচ্ছে আল্লাহর জমিনে হযরত মুহাম্মদ (স:) এর এজেন্ডা বাস্তবায়ন করা। এই হল হেফাজতের অবস্থান।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৮টার দিকে হেফাজত আমিরের ব্যক্তিগত সহকারি মাওলানা ইন`আমুল হাসান ফারুকী’র প্রেরিত ২০ মিনিট ৩৭ সেকেন্ডের একটি ভিডিও বার্তায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

অরাজনৈতিক সংগঠন বলে দাবীদার হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী দেশবাসীর উদ্দেশে একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন । ওই বার্তায় তিনি বলেন, হেফাজত হলো অরাজনৈতিক দেশের বড় একটি দল। বিগত ২০১০ সালে প্রতিষ্ঠা লাভ করা হেফাজত ২০২১ সালে এসে, প্রায় ১১ বছরে কেউ প্রমাণ দিতে পারবে না কোন পার্টির সাথে হেফাজতের সম্পর্ক ছিল।

তবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফর বিরোধী হেফাজতের কোন কর্মসূচি ছিল না বলে দাবী করে হেফাজত আমির ভিডিও বার্তায় আরও বলেন, এমনি কিছু কিছু বক্তা তাদের বক্তব্যে এ ব্যাপারে বললেও কিন্তু মোদি আসার ব্যাপারে হেফাজতের কোনো কর্মসূচি ছিল না। অথচ মোদীর সফর ইস্যুকে কেন্দ্র করে গত ২৬ মার্চ জুমাবার দেশের বিভিন্ন স্থানে কিছু দুর্ঘটনা হয়েছে ।

এছাড়া ২৬ মার্চ হেফাজতের কোনো কর্মসূচি ছিল না। আমাদের কোন কমান্ড ছিল না। আমি নিজে হাটহাজারী মাদরাসায় ছিলাম না, দূরে সফরে ছিলাম। এর আগে ঢাকার বায়তুল মোকাররমে কিছু মুসল্লী এবং ক্যাডারের মাঝখানে কিছু আঘটন ঘটেছে। বায়তুল মোকাররম মসজিদের ভিতরে ক্যাডাররা মুসল্লিদেরকে মারধর করেছে। এরপরে হাটহাজারীর ঘটনা ঘটেছে, তার জন্য আমরা দুঃখিত। আবার বাহ্মণবাড়িয়ায়ওে এমন ঘটনা ঘটেছে বলে হেফাজত আমির দাবী করেন।

আমাদের দেশের অবস্থা একটু ব্যতিক্রম দেখা যাচ্ছে এমনটা মন্তব্য করে হেফাজত আমির ভিডিও বার্তায় আরও বলেন, মাহে রমজানে প্রশাসন বেদড়কভাবে আমাদের হেফাজত ইসলামের নেতাকর্মী, হক্কানী আলেম ওলামাদের, দেশের জনগণকে, ছাত্র ও তৌহিদী জনতাকে হয়রানি ও গ্রেপ্তার করছে। অবিলম্বে এ ধরপাকর ও হয়রানি বন্ধ এবং মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। তাছাড়া আমাদের হেফাজত নেতৃবৃন্দ ছাড়াও নেতৃবৃন্দ ও আলেম-ওলামাসহ ছাত্র ও তৌহিদী জনতা যাদেরকে ইতিমধ্যে আটক করা হয়েছে তাদের নি:শর্ত মুক্তি দিতে হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কপিরাইট © 2021 বাংলারচোখ.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত। Developed by eMythMakers.com