Banglar Chokh | বাংলার চোখ

নিরবে চলে গেলো মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানীর জন্মদিন

সাখাওয়াৎ হোসেন

প্রকাশিত: ২২:০৭, ১২ ডিসেম্বর ২০২১

আপডেট: ০০:০০, ৩১ ডিসেম্বর ১৯৯৯

নিরবে চলে গেলো মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানীর জন্মদিন

জুলুম,নিপীড়ন, নির্যাতন, আর অধিকার বঞ্চিত মানুষের কথা বলতে গিয়ে যার নিজের সম্পদ উজার করে দেন!আসাম থেকে মজলুমের অধিকারের দাবী তুলেছেন, আফ্র,এশিয়া, ল্যাটিনআমেরিকা সহ বিশ্বের,যেখানেই মানবতা আর মানবাধিকার থেকে নাগরিকরা বঞ্চিত হয়েছে,সেখানকার জালেমের বিরুদ্ধে মজলুম এই নেতা গর্জে উঠে ছেন।তিনি আর কেও নয় বৃটিশ খেদাও আন্দোলনের যুব সমাজের নেতা,১৯৫০-১৯৭১ পর্যন্ত পূর্ব পাকিস্তানের জনগনকে ঐক্যবদ্ধ করেন স্বাধীনতার জন্য!দূবৃত্ত,দুনির্তী গ্রস্হ,বিনা ভোটে রাষ্ট্র পরিচালনার বিরুদ্ধে হুন্কার প্রদান কারী মজলুম জননেতা মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর জন্মদিন। হুজুর জীবন দশায় জন্মদিন পালন পচ্ছন্দ করতে না! তিনি বলতেন জন্মদিন যদি পালন করতেই হয় ঐ দিন রোজার রাখার কথা বলতেন।হুজুর ছিলেন বট গাছ এই গাছের নিচে স্বাধীন ভাবে বসবাস করা আর পরাধীন ভাবে বা অন্যের অধিকার হরণকারী সবাই আশ্রয় নিতো। তাই হুজুরকে যার যার মত দেখতেন ও জানতেন!তার চরম শক্র`র বিপদেও তিনি তার পাশে দাঁড়াতেন!যার নাম মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানী। আজ হুজুরের জন্মদিন শুধুই স্মরণ হয় দেশের জনগন আজ মজলুম। এ অবস্থা থেকে পরিবর্তন আনতে জালেমের বিরুদ্ধে মজলুমদের আরেকবার গর্জে উঠতে হবে। আর তা করতে ব্যর্থ হলে সাম্রাজ্যেবাদ,আধিপত্যবাদ,সাম্প্রদায়িক অপশক্তি আর মানবতা বিরোধী দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক চক্রান্তকারীরা, দেশকে ব্যর্থরাষ্ট্রে পরিনত করবে?আসুন দল মতের উর্দ্ধে উঠে জনপ্রতিনিধিত্বশীল সরকার গঠনে ঐক্যবদ্ধ হই!তাহলে সামাজিক সম্প্রতি ফিরে আসবে।হুজুরের "সেই নির্দেশ অনুসরণ করি" রক্ত দিয়ে কিনা স্বাধীনতা দিল্লির গোলামীর জন্যে নয়?তাহলেই ফিরে আসবে আমাদের মর্যাদা। হে দয়াময় গাফুরুর রাহিম আল্লাহ আপনি আপনার বান্দাকে ক্ষমা করুন জান্নাতুল ফেরদৌস দান করুন।

লেখক: সিনিয়র সাংবাদিক,কলামিষ্ট.বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক এ্যাসোসিয়েশন(বিআরজেএ) চেয়ারম্যান

বাংলার চোখ

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়